কিরিন ৯৮০ প্রসেসরে অনার ২০

মোবাইল ফটোগ্রাফিকে অন্য উচ্চতায় নিতে উন্মোচিত হয়েছে অনার ২০ সিরিজঅনার ২০ তে ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর, কোয়াড ক্যামেরাসহ থাকছে আকর্ষণীয় সকল ফিচার।

অনার ২০ এর পুরো স্পেসিফিকেশন

ডিসপ্লেঃ

ফোনটিতে ৬.২৬ ইঞ্চি ফুল এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি পাঞ্চ হোল ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এর রেজুলেশন ১০৮০*২৩৪০ পিক্সেল এবং রেশিও ১৯.৫ঃ৯। স্ক্রিন থেকে বডি রেশিও ৮৪.২%।

চিপসেটঃ

এতে ২.৬ গিগাহার্জ অক্টাকোর কিরিন ৯৮০ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এর জিপিউ মালি-জি৭৬ এমপি১০।

র‍্যাম ও স্টোরেজঃ

ডিভাইসটিতে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনটিতে মেমরি কার্ড ব্যবহার করা যাবে না।

ক্যামেরাঃ

ফোনটির পেছনে থাকছে ৪টি ক্যামেরা। মূল ক্যামেরাটি ৪৮ (অ্যাপার্চার এফ/১.৮) মেগাপিক্সেলের সনি আইএমএক্স৫৮৬ সেন্সর। অন্য তিনটি হলো ১৬ (অ্যাপার্চার এফ/২.২) আল্ট্রা ওয়াইড লেন্স, ২ (অ্যাপার্চার এফ/২.৪) ওয়াইড ম্যাক্রো লেন্স ও ২ (অ্যাপার্চার এফ/২.৪) ডেপথ সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এটি দিয়ে ২১৬০ পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

সেলফি তোলার জন্য থাকছে ৩২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা, এর অ্যাপার্চার এফ/২.০। যা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ কোয়াড ক্যামেরায় অনার ২০ প্রো

ব্যাটারি ও ওএসঃ

এতে ৩,৭৫০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যাটারি দ্রুত গতিতে চার্জ দেওয়ার জন্য রয়েছে ২২.৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং, এটি দিয়ে ২৪ মিনিটে ৫০% চার্জ দেওয়া যাবে।

এর অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই ও ম্যাজিক ২.১ ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যান্যঃ

ফোনটির সাইডে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার ব্যবহার করা হয়েছে আর থাকছে ফেইস আনলক ফিচার। এতে হেডফোন জ্যাক ও রেডিও নেই। টাইপ-সি পোর্ট ব্যবহার করা হয়েছে।

রঙ ও দামঃ

ফোনটি বাজারে নীল, সাদা ও কালো রঙে পাওয়া যাচ্ছে।

অনার ২০ এর দাম ধরা হয়েছে ৫০০ ইউরো (৪৭,০৪৫ টাকা)।

ফোনটি দেশের বাজারে কবে আসবে তা এখনো জানা যায়নি। জানা গেলে জানিয়ে দেওয়া হবে।

ইরফান

প্রযুক্তির বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জানতে এবং জানাতে ভালোবাসি, জানানোর লক্ষ্য নিয়ে ভালোবাসা দিয়ে গড়ে তুললাম টেকি নাউ।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।