স্ন্যাপড্রাগণ ৬৬৫ ও কোয়াড ক্যামেরায় এসেছে নকিয়া ৫.৩

নকিয়া ৫.৩

এইচএমডি গ্লোবাল নিয়ে এসেছে নকিয়া ৫.৩। ফোনটিতে কোয়াড ক্যামেরা, স্ন্যাপড্রাগণ ৬৬৫ প্রসেসর এবং ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে।

নকিয়া ৫.৩ স্পেসিফিকেশনঃ

ডিসপ্লেঃ

ফোনটিতে ৬.৫৫ ইঞ্চি এইচডি প্লাস আইপিএস এলসিডি ডিসপ্লে ব্যবহার করা হয়েছে। এর রেজুলেশন ৭২০*১৬০০ পিক্সেল ও রেশিও ২০ঃ৯। স্ক্রিন থেকে বডি রেশিও ৮২.৩%।

চিপসেটঃ

এতে ২.০ গিগাহার্জ অক্টাকোর স্ন্যাপড্রাগণ ৬৬৫ প্রসেসর ব্যবহার করা হয়েছে। এর জিপিইউ হিসেবে অ্যাড্রিনো ৬১০ ব্যবহার করা হয়েছে।

র‍্যাম ও স্টোরেজঃ

  • ৩ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৪ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ
  • ৬ জিবি র‍্যাম ও ৬৪ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ

যা মাইক্রো এসডি কার্ড দিয়ে বাড়ানো যাবে।

ক্যামেরাঃ

ফোনটির পেছনে কোয়াড ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। মূল ক্যামেরাটি ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড ক্যামেরা, ৫ মেগাপিক্সেলের অ্যাল্ট্রাওয়াইড লেন্স, ২ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো লেন্স এবং ২ মেগাপিক্সেলের ডেপথ সেন্সর ব্যবহার করা হয়েছে। এর ক্যামেরা দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

সেলফি তোলার জন্য এতে ৮ মেগাপিক্সেলের পাঞ্চহোল সেলফি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে। এটি দিয়ে ১০৮০ পিক্সেলে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে।

আরো পড়ুনঃ মিড বাজেটের বাজার কাঁপাতে এসেছে রেডমি নোট ৯ প্রো ম্যাক্স

ব্যাটারি ও ওএসঃ

দীর্ঘক্ষণ ব্যবহারের জন্য ফোনটিতে ৪,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যাটারি দ্রুত গতিতে চার্জ করার জন্য ১০ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং প্রযুক্তি।

এর অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে অ্যান্ড্রয়েড ১০ ব্যবহার করা হয়েছে।

অন্যান্যঃ

ব্যবহারকারীর তথ্যের সুরক্ষার জন্য ফোনটির পেছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর রয়েছে। এতে হেডফোন জ্যাক, রেডিও ও ইউএসবি-সি পোর্ট রয়েছে।

রঙ ও দামঃ

ফোনটি সায়ান, স্যান্ড এবং কয়লা রঙে বাজারে পাওয়া যাবে।

নকিয়া ৫.৩ দাম ধরা হয়েছে ১৮৯ ইউরো (১৭,২৫৫ টাকা)।

ফোনটি দেশের বাজারে আসলে বিস্তারিত সকল তথ্য ও দাম জানিয়ে দেওয়া হবে।

এডিটর চয়েজঃ মিড বাজেটের বাজার কাঁপানো দামে এসেছে স্যামসাং গ্যালাক্সি এম২১

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।